>
>
>

ইয়াও ঝংপিং: মানসিক এবং শারীরিক যন্ত্রণা থেকে রোগীদের উপশম করেন


  প্রতিটি জীবন রক্ষা করেন সতন্ত্র প্রযুক্তিতে


      ইয়াও ঝংপিং, গুয়াংঝো আধুনিক ক্যান্সার হাসপাতালের ক্যান্সার ডাক্তার, হেনান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক। তিনি ক্যান্সার চিকিৎসার কাজের সাথে অনেক বছর ধরে জড়িত এবং ক্যান্সার নির্ণয় এবং চিকিত্সায় অমূল্য ক্লিনিকাল অভিজ্ঞতা জমা করেছেন। তিনি ফুসফুসের ক্যান্সার, স্তন ক্যান্সার, পাকস্থলী ক্যান্সার, অন্ত্রের ক্যান্সার ইত্যাদি কঠিন রোগে বিশেষজ্ঞ এবং সকল প্রকারের মিনিমালি ইনভেসিভ থেরাপিস যেমন – ইনভেনশনাল থেরাপি, আই125 সীড ইমপ্লেন্টেশান, Ar-He নাইফ থেরাপি এবং রেডিওফ্রেকুয়েন্সি এবলেশান ইত্যাদির সাথে পরিচিত। তিনি ক্লিনেকাল চিকিৎসায় এসব থেরাপি দিতে এবং ক্যন্সারের বিভিন্ন জটিলতার সমাধান করতে সক্ষম। ডঃ ইয়াও এর ক্রমাগত ক্যান্সারে উপর অধ্যয়ন এবং গবেষণা তাকে সক্ষম করেছে অনেক মধ্যবয়ষ্ক ক্যান্সার রোগীদের তাদের যন্ত্রণা উপশম করা, তাদের জীবনের মান উন্নত করা এবং দীর্ঘ জীবন যাপন করায় সাহায্য করতে।

  একবার তার এক রোগী ছিল নাম - ওয়াং ইংজিন, যে ছিল ইন্দোনেশিয়ার। ২০১১ সালের জানুয়ারীতে, ওয়াং ইংজিন তীব্র কাশি পরীক্ষার জন্য স্থানীয় একটি হাসপাতালে যান। তার সিটি স্ক্যানের ফলাফল পাওয়ার পর, প্রাথমিকভাবে ডাক্তার তার হাড় স্থানান্তরণ এবং ফুসফুস ডান রোবের ক্যান্সার নির্ণয় বের করেন। ওয়াং ইংজিন ফলাফল গ্রহণ করতে অস্বীকার করেন এবং তারপর তার পরিবারের সাথে আরও পরীক্ষার জন্য সিঙ্গাপুর যান। পরীক্ষার ফলাফলে তার ডান ফুসফুসের এডেনোকার্সিনোমিয়া ধরা পরে। তিনি ডাক্তার এর পরামর্শ অনুসরণ করেন এবং চিকিত্সা গ্রহণ করেন। যাইহোক, চিকিত্সার প্রত্যাশিত প্রভাব দেখা যায় না। উল্টা তার অবস্থা আরও খারাপ হতে থাকে। দ্রুত চিকিৎসা নেয়ার জন্য ওয়াং ইংজিন ২০১২ সালের এপ্রিলে গুয়াংঝো আধুনিক ক্যান্সার হাসপাতালে আসেন। ডঃ ইয়াও প্রথমে তার মেডিকেল রিপোর্ট বিশ্লেষণ করেন, তিনি বিস্মিত হন কারণ চিকিত্সার পর, রোগীর টিউমার সঙ্কুচিত হয়নি, আরও বড় হয়ে উঠেছে। ওয়াং ইংজিনের অবস্থা আরও ভালোভাবে বুঝাতে ডঃ ইয়াও তার বিস্তারিত পরীক্ষার ব্যবস্থা করেন, যাতে তার ফুসফুসের ক্যান্সার সহ একাধিক স্থানান্তরণ ধরা পড়ে।

  ক্যান্সার এবং রোগীর অবস্থার ভিত্তিতে , ডঃ ইয়াও আরও পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণ করেন এবং পরিশেষে তাকে ইনভেনশনাল থেরাপি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। চিকিত্সার পর ওয়াং ইংজিনের অবস্থার সুস্পষ্ট উন্নতি হয় এবং ক্যান্সার নিয়ন্ত্রিত হয়। এর পরে, ডঃ ইয়াও রোগীকে ৫ বার সফলভাবে ইনভেনশনাল থেরাপির দেন। এরপরের CT তে দেখা যায় যে, ক্যান্সারে আসলেই অনেক করেছে। যখন রোগী জিজ্ঞাসা করে যে, থেরাপি যখন একই গুয়াংঝো আধুনিক ক্যান্সার হাসপাতালে চিকিত্সা আর সিঙ্গাপুরে চিকিৎসার ফলাফল ভিন্ন হল কেন, ডঃ ইয়াও বলেন যে, চিকিত্সার প্রভাব নির্ভর করে ওষুধের ডোজ এবং বিশদ চিকিত্সা পরিকল্পনার উপর, যা বিভিন্ন ক্যান্সারের রোগী এবং ক্যান্সারের বিভিন্ন পর্যায়ের জন্য বিভিন্ন হয়। তাই একই থেরাপির ক্ষেত্রেও চিকিৎসার ফলাফল আলাদা হতে পারে। রোগীর স্বত্যন্ত্র অবস্থার উপর ভিত্তি করে চিকিত্সা পরিকল্পনা করাটাই হচ্ছে কাঙ্ক্ষিত উপায়।

  প্রতিটি কথায় এবং কাজ রোগীকে উত্সাহিত করেন

  ইয়াও ঝংপিং বিশ্বাস করে যে, একজন ক্যান্সার ডাক্তার হওয়ার অর্থ রোগীদের শুধুমাত্র শারীরিক স্বাস্থ্য আরোগ্য করা নয়, আরো গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে তাদের উদ্বেগ কমানো ফলে তাদের ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই করার মনোবল গড়ে তুলতে এবং মানসিক ভাবে তাদের মাঝে জীবনের আশা জাগাতে সাহায্য করা।

  ডঃ ইয়াও বলেন যে ক্যান্সার হচ্ছে খুব জটিল প্যাথোজিনেসিসের একটি শারীরিক এবং মানসিক রোগ। বিশ্লেষণের মাধ্যমে, ইয়াও ঝংপিং চিকিত্সাগতভাবে আবিষ্কার করেন, ৮০% এর উপর ক্যান্সার রোগীদের মানসিক সমস্যা আছে। কিছু রোগী রোগের সম্মুখীন হয়ে খুবই দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হয়ে পড়ে।অনেকে নেতিবাচক আবেগ গ্রস্ত হয়ে পড়ে এবং ডাক্তারের চিকিত্সার সঙ্গে সহযোগিতা করতে প্রত্যাখ্যান করে, এভাবে ভাল চিকিৎসা বিঘ্নিত হয়। এই সমস্যাগুলো অনেক ক্যান্সার ডাক্তার কাছে অবহেলিত থাকে। একারণে ডঃ ইয়াও আরো আত্মবিশ্বাসী হন কারণ, বিভিন্ন রোগের বিশেষত ক্যান্সারের চিকিৎসায় মানসিক ফ্যাক্টররের বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব রয়েছে।

  তাই যখন তার রোগীদের সম্মুখীন হন, ডঃ ইয়াও রোগীদের সাথে সবসময় অস্থাবান, সৌহার্দপূর্ণ এবং ইতিবাচক মনোভাবযুক্ত আচরণ করেন যাতে রোগীরা তার চিকিৎসা করার আত্মবিশ্বাস অনুভব করার মানসিক ইঙ্গিত পায়। এছাড়া তিনি চালতে থাকা চিকিত্সার প্রক্রিয়া সম্পর্কে রোগীদের বলেন এবং তাদের বিশ্বাস করাতে চেষ্টা করেন যে তাদের এই শারীরিক অবস্থায় নিয়ন্ত্রণযোগ্য। এছাড়া দৈনন্দিন ওয়ার্ড পরিদর্শনে ডঃ ইয়াও প্রায়ই রোগীদের সিনেমা দেখতে, বাইরের ক্রিয়াকলাপে অংশ নিতে প্রভৃতি কাজ উৎসাহিত করেন যা তাদের স্বাভাবিক জীবনের রীতিনীতি মেনে চলতে সাহায্য করে যা তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য ভালো। এভাবে তিনি তাদের ক্যান্সারের ভয় কাটাতে সহায্য করেন এবং চিকিৎসার মাধ্যমে সহযোগীতা করেন।

scrollTop

কান্সারের ধরণ

মলাশয় ক্যান্সার
ফুসফুস কান্সার
গর্ভাশয়ের ক্যান্সার
পাকস্থলীর ক্যান্সার
বাকযন্ত্রের কান্সার
খাদ্যনালীর ক্যান্সার
পাকস্থলির ক্যান্সার
মস্তিস্কের ক্যান্সার
লিভার কান্সার
হাড়ের ক্যান্সার
স্কীন ক্যান্সার
যোনি ক্যান্সার
পিত্তকোষ
প্রোস্টেট ক্যান্সার
লিম্ফোমা
অগ্ন্যাশয় ক্যান্সার
এন্ডওমেটরিয়াল ক্যান্সার
থাইরয়েড ক্যান্সার
পিত্তনালীর ক্যান্সার
মুখের ক্যান্সার
কিডনি ক্যান্সার
একাধিক মেলোমা
জিহ্বা ক্যান্সার
মূত্রাশয় ক্যান্সার
ডিউড্রেনাল ক্যান্সার
সফট টিস্যু ক্যান্সার
অ্যাড্রেনাল ক্যান্সার
Nasopharyngeal ক্যান্সার
testicular ক্যান্সার
লিউকেমিয়া
মলদ্বারে ক্যান্সার
চোখের কান্সার

প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি
জাদুকরী স্টিম সেল
গ্রীন কেমোথেরাপি-ক্যান্সার চিকিৎসায় এক অনন্য সংযোজন
পেট/সিটিঃ চিত্রের সাহায্যে কোষের বিপাক প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণের একটি প্রযুক্তি যার মাধ্যমে
টার্গেটেড জীন থেরাপিঃ ক্যান্সার নিরাময়ের একটি নতুন চিকিৎসা
ফোটন নাইফ : ত্রিমাত্রিক কনফর্মাল রঁজনরশ্মি দ্বারা চিকিত্সা ------ একাধিক ক্ষেত্র প্রযোজ্য, একত

খবর ও ঘটনা
ব্যক্তিগত প্রোফাইল
  বোয়াই অ্যান্টিক্যান্সার ক্লাব সদস্য সম্মেলন মডার্ণ ক্যান্সার হসপিটাল গুয়াংজৌ থেকে সফল ভাবে চিকিৎসা নিয়ে আসা রোগীদের সম্মেলন
চট্টগ্রামে মিনিম্যালি ইনভ্যাসিভ টার্গেটেড ক্যান্সার থেরাপি প্রযুক্তি সেমিনার
ক্যান্সার চিকিৎসায় নতুন আশা মিনিম্যালি ইনভ্যাসিভ টার্গেটেড ক্যান্সার থেরাপি প্রযুক্তি সেমিনার
চট্টগ্রামে চায়না এমডিটি বিশেষজ্ঞ দলের দ্বিতীয় সেমিনার অনুষ্ঠিত