>
>
>

ডঃ পেং জিয়াওচির পরিচয়

      মেডিকেল পরিবার, চিকিৎসা সেবায় দৃঢ় বিশ্বাস

  পেং জিয়াওচি, প্রধান সার্জন এবং আধুনিক ক্যান্সার হাসপাতালের গুয়াংঝো সম্পর্কে বিশেষজ্ঞ, ঝংশান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় তাঁর মাস্টার্স ডিগ্রী নেনে এবং চমত্কার স্কোর নিয়ে আরও অধ্যয়নের জন্য কানাডা যান। কানাডায় অধ্যয়নরত সময়ে তিনি উন্নত ক্যান্সার চিকিত্সা প্রযুক্তি আয়ত্ত করেন। কানাডার তিক্ত জীবনে তিনি ক্যান্সার চিকিত্সার নতুন ধারণা এবং পদ্ধতির নিয়ে থাকেন এবং তার দৃষ্টিভঙ্গি প্রসারিত করেন। চীনে ফিরে আসার পর তিনি অবশেষে ডাক্তারি কোর্সের নিজেকে নিয়োজিত করার সিদ্ধান্ত নেন।

  ডঃ পেং ১৯৯৩ সালে নিজেকে ক্যান্সার চিকিত্সায় নিয়োজিত করার পর এখন ১৯ বছর হয়ে গেছে। তিনি একটি মেডিকেল পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন এবং একটি মেডিকেল কর্মী হতে চেস্টায় ছিলেন। ডঃ পেং বলেন তিনি আগে শুধুমাত্র একজন ডাক্তার হিসাবে ভূমিকা উন্নতি করেত চেয়েছিলেন। তবে, রোগীদের গভীর কষ্ট দেখে, ক্যান্সার রোগীদের কার্যকরী চিকিত্সা অভাবে হতাশাগ্রস্ত পরিবারকে দেখে, তিনি হৃদয় থেকে প্রেরণা অনুভব করেন এবং ক্যান্সার চিকিত্সায় আরও গবেষণা করে তাদের সাহয্য করার সিদ্ধান্ত নেন। তাই ডঃ পেং আরো ক্যান্সার রোগীদের সাহায্য করার জন্য ক্রমাগত বিভিন্ন শিক্ষাগত সম্মেলনে উপস্থিত হন, অন্যান্য অনকোলজিস্টদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন, ডাক্তারী বই পড়েন, নতুন ক্যান্সার তথ্য নিয়ে নিজেকে সমৃদ্ধ জন্য ইন্টারনেট ঘাটেন। ক্রমাগত অধ্যয়ন ও গবেষণা এর মাধ্যমে তিনি ক্যান্সার চিকিত্সা সম্পর্কে তাঁর নিজস্ব বোধ অর্জণ করেন এবং বিভিন্ন পত্রিকায় ২০ টিরও বেশি নিবন্ধ প্রকাশ করেন। তিনি অনেক বড় বড় একাডেমিক সম্মেলনের মাধ্যমে তার দৃষ্টিভঙ্গি বিনিময়ও করেন।

  পেশাদারীত্ব এবং গবেষণায় বিনিময় করেন, আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি লাভ করেন

  অনেক বছর ধরে ক্যান্সার চিকিত্সা নিয়ে কাজ করায়, ডঃ পেং ক্যান্সার চিকিত্সা প্রযুক্তি যেমন – রেডিওফ্রেকুয়েন্সি এবলেশান, রেডিওএকটিভ সীড ইমপ্লেন্টেশান, ফটোডায়নামিক থেরাপি ইত্যাদিতে সমৃদ্ধ জ্ঞান সঞ্চয় করেন। তিনি সক্রিয়ভাবে মিনিমালি ইনভেসিভ থেরাপি এবং মাল্টিডিসিপ্লিসারি চিকিৎসা প্রয়োগ করেন। তার নেতৃত্বের অধীনে গুয়াংঝো আধুনিক ক্যান্সার হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ দল উচ্চতর ব্যাপক ক্যান্সার চিকিত্সার সম্মিলিত গবেষণায় কঠোর পরিশ্রম করে এবং পরিশেষে ইনটারভেনশনাল ইমরোলিজম, রেডিওএকটিভ সীড ইমপ্লেন্টেশান, বায়ো ইমিওনোথেরাপি এবং Ar-He নাইফ থেরাপি ইত্যাদির উপর ভিত্তি করে "মিনিমালি ইনভেসিভ টার্গেটেড ক্যান্সার নির্ণয় ও চিকিত্সা পদ্ধতি" গঠন করেন।

  ডঃ পেং বেশ কয়েকবার জন্য আন্তর্জাতিক ক্যান্সার চিকিত্সা একাডেমিক কনফারেন্সে আমন্ত্রন পেয়েছেন, যার মধ্যে আছে ২১তম ওয়ার্ল্ড ক্যান্সার কংগ্রেস, ৭ম আন্তর্জাতিক মিনিমালি ইনভেসিভ টিউমার ট্রিটমেন্ট একাডেমিক কনফারেন্স, "CSCO-Nanfang হাসপাতাল" টিউমার বায়োলজিকাল থেরাপি এবং মলিকিউলার টার্গেটেড থেরাপি ফোরাম, নাইট অব টিউমার মিনিমালি ইনভেসিভ ট্রিটমেন্ট অব চায়না ইত্যাদি। ৭ম আন্তর্জাতিক মিনিমালি ইনভেসিভ টিউমার ট্রিটমেন্ট একাডেমিক কনফারেন্সে ডঃ পেং চীনা এবং পশ্চিমী ঔষধের সমন্বয়ে মিনিমালি ইনভেসিভ টার্গেটেড থেরাপির নতুন রূপরেখা নিয়ে একটি চমকপ্রদ একাডেমিক রিপোর্ট প্রদান করেন।

  এই থেরাপি চীনা এবং পশ্চিমী ঔষধের ব্যবহারের সম্মিলন ঘটায়, মিনিমালি ইনভেসিভ টার্গেটেড থেরাপির মাধ্যমে যথাযথ এবং দৃঢ় ভাবে, রোগীর শরীর থেকে চিকিত্সার ক্ষতিকর প্রভাব কমিয়ে ক্যান্সারকে লক্ষ্যবস্তু করে এবং স্থায়ী ভাবে শেষ করে দেয়।

  ডঃ পেং এছাড়াও ফিলিপাইনের ৩৪ সদস্যের ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ গ্রুপ, ওয়ার্ল্ড ক্যান্সার কংগ্রেসের ক্যান্সার বিশেষজ্ঞগণ, ইন্দোনেশিয়ার নিয়াইলাংকা বিশ্ববিদ্যালযয়ের প্রতিনিধি দল, ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসির প্রতিনিধিদল, ৩০ টিরও বেশি হাসপাতালের ডীন এবং ইন্দোনেশিয়ার চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের মত অনেক অনকোলজিস্টদের ক্যান্সার চিকিত্সা সম্পর্কে যোগাযোগ করেছেন। এছাড়া, গুয়াংঝো আধুনিক ক্যান্সার হাসপাতাল ও ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ, মেডিকেল অ্যাডমিনিস্ট্রেটর এবং সংবাদ মাধ্যমের বন্ধুদের আমন্ত্রণ জানিয়েছে মিনিমালি ইনভেসিভ অপারেশান দেখার জন্য এবং একাডেমিক তথ্য বিনিময় করার জন্য, এসময়, ডঃ পেং গভীর তাত্ত্বিক জ্ঞান এবং সমৃদ্ধ বাস্তব অভিজ্ঞতার মাধ্যমে তাদের অপারেশন ব্যাখ্যা করেছেন।

  তিনি দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার বড় বড় প্রচার মাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন যাদের মধ্যে আছে - KOMPAS, Jawa POS, ফিলিপাইন স্টার, হেলথ, Thành Phố Hồ Chí Minh, Báo An NinhThủ Đô, ইত্যাদি।

  নিবিড় যত্নের ফলে পেয়েছেন রোগীদের আস্থা

  ডঃ পেং দীর্ঘ সময় ধরে ক্যান্সার গবেষণা এবং ক্যান্সার চিকিৎসার কাজের সাথে যুক্ত আছেন। তিনি কেমোথেরাপি, এন্ডোক্রাইন থেরাপি এবং মলিকিউলার টার্গেটেড থেরাপি, ইত্যাদির মাধ্যমে সকল প্রকার ম্যালিগনেন্ট ক্যান্সার চিকিৎসায় বিশেষজ্ঞ। এছাড়াও, ফটোডায়নামিক থেরাপি, জীণ টার্গেটেড থেরাপি, ন্যানো-থেরাপি এবং বায়োলজিকাল থেরাপি ইত্যাদি মিনিমালি ইনভেসিভ ক্যান্সার চিকিৎসা প্রযু্ক্তিতে তাঁর সমৃদ্ধ অভিজ্ঞতা আছে। তিনি চীনে মিনিমালি ইনভেসিভ থেরাপি এবং মাল্টিডিসিপ্লিনারি ক্যান্সার চিকিৎসার মূর্ত প্রতীক। ক্যান্সার চিকিত্সায় তাঁর অনেক দিনের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে, ডঃ পেং বলেন যে, ক্যান্সারের প্রথম চিকিৎসা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই, রোগীদের এর প্রতি আরো মনোযোগ এবং ধৈর্য থাকা উচিত এবং ডাক্তারদের সঙ্গে ভালভাবে সহযোগিতা করা উচিত। তিনি আরও গুরুত্ব দিয়ে বলেন যে, ক্যান্সারের একটি অত্যন্ত জটিল রোগ। কোন একক থেরাপির ভাল চিকিত্সার ফলাফল থাকতে নাও পারে। আসলে, রোগীর অবস্থা অনুযায়ী বিস্তারিত চিকিত্সা করা উচিত। আর শুধু এই ভাবে, রোগী চিকিত্সার ভালো ফল পেতে পারেন।

  ডঃ পেং এর দৈনিক ওয়ার্ড পরিদর্শন , তার রোগীদের প্রতি দায়িত্বশীলতার প্রতিফলক। পরিদর্শন করার সময়, সর্বদা ডঃ পেং তাদের শরীরের অবস্থা, জীবনযাপন, মানসিক অবস্থা এবং খাদ্যতালিকা ইত্যাদির বিস্তারিত খোঁজখবর নেন, যাতে তিনি তাদের অবস্থা ভালো করে বুঝতে পারেন। তিনি বলেন: "আমাদের অবশ্যই সাবধানে রোগীর গুরুত্বপূর্ণ লক্ষণের পরিবর্তন লক্ষ্য করা উচিত, ছোট হলেও সেগুলো কোন বড় এমন কোন পবিবর্তনকে ফুটিয়ে তুলতে পারে যা তাদের জীবনের জন্য হুমকি হতে পারে।" কথায় বলে আরেগ্যের দশের তিন ভাগ হয় চিকিৎসায়, সাত ভাগ হয় যত্নে। তাই ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসা যত গুরুত্বপূর্ণই হোক তা ঐ ৩০% এর মধ্যেই, বাকী ৭০% নির্ভর করে সেবা-যত্নের উপর। চিকিৎসক হিসেবে ড: পেং রোগীর মানসিক, দৈনন্দিন জীবনযাপন সংক্রান্ত এবং খাবার দাবার সহ সব বিষয়ে প্রত্যেক রোগীর প্রতি যত্নশীল । তার সকল আচরণ রোগীকে ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই করার আত্মবিশ্বাস ও আশা জাগায়।

  ব্যক্তিকেন্ত্রিক চিকিৎসা রোগীদের আশা জাগায়

  বেনি ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তার একজন ফুসফুসের ক্যান্সার রোগী। ২০১০ সালের ডিসেম্বরে স্থানীয় একটি হাসপাতালে পরীক্ষার মাধ্যমে তার ফুসফুসে ৩.৬ সে.মি. ক্যান্সার ধরা পড়ে। তারপর তিনি অন্য ক্যান্সার রোগীর কাছে শুনে গুয়াংঝো আধুনিক ক্যান্সার আসেন। হাসপাতালে আসার পর তার ক্যান্সার বেড়ে ৪.৩ সে.মি. হয়েছে শুনে তিনি ভয় পান। ৬৮ বছর বয়স্ক বেনি ক্যান্সারে খুবই কষ্ট পাচ্ছিলেন এবং তিনি অপারেশন করার মত অবস্থাও ছিলেন না। ওদিকে ইন্দোনেশিয়ার হাসপাতালে তার আগের নেয়া কেমোথেরাপির পাশ্বপ্রতিক্রিয়ায় তিনি তার প্রায় সব চুল হারিয়ে ফেলেন। সেই ক্ষেত্রে, ডঃ পেং এর নেতৃত্বে বিশেষজ্ঞ দল তার শারীরিক অবস্থা ও লক্ষণ সমুহের ভিত্তিতে তার জন্য ইনডিভিজুয়ালাইজড মিনিমালি ইনভেসিভ ট্রিটমেন্ট প্লান তৈরি করেন। ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য এতে Ar-He নাইফ থেরাপি, রেডিওএকটিভ সীড ইমপ্লেন্টেশান, মিনিমালি ইনভেসিভ থেরাপি এবং রেডিওথেরাপির সমন্বয় ঘটানো হয়। কয়েক বার চিকিৎসা দেয়ার পর বেনির অবস্থার ক্রমান্নতি হয়। তার আশ্চর্য করে আবার তার চুল গজায়। তিনি বুঝতে পারেন এটা হচ্ছে ডঃ পেং এবং তাঁর দলের সদস্যদের দক্ষ চিকিৎসা প্রযুক্তির ফল।

  বেনির টিউমার কমে আসে। তার ঘুম, জীবন মান এবং শরীরের স্বভাবিক কাজকর্ম স্পষ্টত উন্নতি করে।

  বেনির জন্য, চীনে চিকিত্সা ছিল একটি অভাবনীয় ঘটনা, যা তাকে গভীর ভাবে স্পর্শ করেছিল। বাড়িতে ফিরে যাওয়ার আগে, তিনি ডঃ পেং কে কৃতজ্ঞতাসরূপ একটি কার্ড উপহার দেন, যাতে তিনি লিখেছেন:

  আপনার ধৈর্য, ভালোবাসা এবং যত্ন করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনি হচ্ছেন একটি আলোকবর্তিকা যা অন্ধকার একটি জগতকে আলোকিত করে।

scrollTop

কান্সারের ধরণ

মলাশয় ক্যান্সার
ফুসফুস কান্সার
গর্ভাশয়ের ক্যান্সার
পাকস্থলীর ক্যান্সার
বাকযন্ত্রের কান্সার
খাদ্যনালীর ক্যান্সার
পাকস্থলির ক্যান্সার
মস্তিস্কের ক্যান্সার
লিভার কান্সার
হাড়ের ক্যান্সার
স্কীন ক্যান্সার
যোনি ক্যান্সার
পিত্তকোষ
প্রোস্টেট ক্যান্সার
লিম্ফোমা
অগ্ন্যাশয় ক্যান্সার
এন্ডওমেটরিয়াল ক্যান্সার
থাইরয়েড ক্যান্সার
পিত্তনালীর ক্যান্সার
মুখের ক্যান্সার
কিডনি ক্যান্সার
একাধিক মেলোমা
জিহ্বা ক্যান্সার
মূত্রাশয় ক্যান্সার
ডিউড্রেনাল ক্যান্সার
সফট টিস্যু ক্যান্সার
অ্যাড্রেনাল ক্যান্সার
Nasopharyngeal ক্যান্সার
testicular ক্যান্সার
লিউকেমিয়া
মলদ্বারে ক্যান্সার
চোখের কান্সার

প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি
জাদুকরী স্টিম সেল
গ্রীন কেমোথেরাপি-ক্যান্সার চিকিৎসায় এক অনন্য সংযোজন
পেট/সিটিঃ চিত্রের সাহায্যে কোষের বিপাক প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণের একটি প্রযুক্তি যার মাধ্যমে
টার্গেটেড জীন থেরাপিঃ ক্যান্সার নিরাময়ের একটি নতুন চিকিৎসা
ফোটন নাইফ : ত্রিমাত্রিক কনফর্মাল রঁজনরশ্মি দ্বারা চিকিত্সা ------ একাধিক ক্ষেত্র প্রযোজ্য, একত

খবর ও ঘটনা
ব্যক্তিগত প্রোফাইল
  বোয়াই অ্যান্টিক্যান্সার ক্লাব সদস্য সম্মেলন মডার্ণ ক্যান্সার হসপিটাল গুয়াংজৌ থেকে সফল ভাবে চিকিৎসা নিয়ে আসা রোগীদের সম্মেলন
চট্টগ্রামে মিনিম্যালি ইনভ্যাসিভ টার্গেটেড ক্যান্সার থেরাপি প্রযুক্তি সেমিনার
ক্যান্সার চিকিৎসায় নতুন আশা মিনিম্যালি ইনভ্যাসিভ টার্গেটেড ক্যান্সার থেরাপি প্রযুক্তি সেমিনার
চট্টগ্রামে চায়না এমডিটি বিশেষজ্ঞ দলের দ্বিতীয় সেমিনার অনুষ্ঠিত