>
>
>

লিম্ফোমা নির্ণয়

  লিম্ফোমা নির্ণয় বা সনাক্ত করণ ধারনা বা আন্দাজের উপর করা সম্ভব নয়। রোগের উপসর্গ , কোন রকম ক্ষত, ক্ষতের অবস্থান এবং পরিবর্তন ইত্যাদি সম্পর্কে ভুল নির্ণয় পদ্ধতি লিম্ফোমা রোগের হার বৃদ্ধি করে। নিম্নে আলোচিত পরীক্ষাসমুহ রোগীর লিম্ফোমা নির্ণয়ে সাহায্য করেঃ

লিম্ফোমা,লিম্ফোমা নির্ণয়

  এক্সরে এর সাহায্যে ফুসফুসের হাইলাম,গহ্বর, শ্বাসনালী এবং এন্ডোস্পারম এর লসিকা গ্রন্থি পর্যবেক্ষণ করা হয়। যদি ফুসফুসের হাইলাম এবং অ্যানটেরোসুপেরিওর মিডিয়াস্টেনাম এর লসিকা গ্রন্থি কোন কারণে ফুলে উঠে তবে তা মারাত্মক অবস্থা প্রকাশ করে। তবে তার যদি আগে লসিকা গ্রন্থি ফুলে উঠে , যক্ষা, ক্ষণস্থায়ী সংক্রমণ ইত্যাদি উপসর্গ দেখা যায় তাহলে অন্যান্য ক্যান্সারের উপস্থিতি নির্ণয় করা হয়।

  কম্পিউটারাইজড টমোগ্রাফি (CT) লিম্ফ টিস্যু সনাক্ত করতে পারে। চেস্ট সিটি স্ক্যানের সাহায্যে ফুসফুসের গহ্বর এবং লসিকা গ্রন্থি, শ্বাসনালী, ফুসফুসের হাইলাম, ট্রাকিয়া, মহাধমনীর ফাঁকা স্থান পরীক্ষা করা হয়।

  ম্যাগনেটিক রেসোন্যান্স ইমেজিং (এমআরআই) রক্তনালীসমূহের কাঠামো পরীক্ষা এবং শরীরের ভিতর বহু – সমতল ভাবে স্ক্যান করতে পারেন.

  রেডিওস্টপিক স্ক্যানিং:.এর সাহায্যে হাড়ের ক্ষত এক্সরের তুলনায় তাড়াতাড়ি নির্ণয় করা সম্ভব হয়।সাধারণত হিস্টোসাইটিক লিম্ফোমা হাড়ের মধ্যে প্রবেশ করতে করে।

  আলট্রাসাউন্ড পরীক্ষার মাধ্যমে ২ ডায়াসে.মি. এর উপর লসিকা গ্রন্থি পরীক্ষা করা যায়। . তবে এটি লসিকাগ্রন্থিতে ক্যান্সারের অনুপ্রবেশ বা প্রতিক্রিয়া, দীর্ঘস্থায়ী প্রদাহ ইত্যাদি কারণ সনাক্ত করতে পারে না। এর মাধ্যমে লিভার বা প্লীহার মধ্যে সুস্পষ্ট টিউবারকল নির্ণয় করা যায়।

  ডাক্তাররা ইমেজিং পরীক্ষার মাধ্যমে রোগনির্ণয় বা পরীক্ষার জন্য লিম্ফোমায় আক্রান্ত রোগীর টিউমার থেকে কিছু টিস্যু কেটে বা চেঁচে নিয়ে পরীক্ষার মাধ্যমে টিউমার টি প্রাথমিক বা ম্যালিগন্যান্ট পর্যায়ে আছে কিনা তা নিশ্চিত করেন।

  লসিকা গ্রন্থির বায়োপসি পরীক্ষাঃ ম্যালিগন্যান্ট টিউমার পরীক্ষণের জন্য লসিকা গ্রন্থি থেকে কিছু টিস্যু কেটে বা চেঁচে নিয়ে বায়োপসি এবং প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষা করা হয় ।

  অস্থি মজ্জা বা বোনম্যারো এর বায়োপসি পরীক্ষাঃ অস্থি মজ্জা উপর লিম্ফোমার প্রকোপ অত্যন্ত বেশি প্রায় ৪০%- ৯০% । রোগনির্ণয় বা পরীক্ষার জন্য অস্থি মজ্জা থেকে টিস্যু বা কোষ কলা কেটে বা চেঁচে নিয়ে অস্থি মজ্জায় ম্যালিগন্যান্ট লিম্ফোমার অস্তিত্ব পরীক্ষা করা হয়। সাধারণত এটি পাংচারিং এর মাধ্যমে করা হয়।

  লিভারের বায়োপসি পরীক্ষাঃ নন- হজকিংন লিম্ফোমার ক্ষেত্রে ছোট লিম্ফ কোষ এবং ছোট ক্লেভড কোষগুলো দ্রুত লিভারে আক্রমন করতে পারে।

  রক্ত পরীক্ষাঃ হজকিংন রোগের ক্ষেত্রে শ্বেত রক্ত কনিকা স্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পায়। কিন্তু নন- হজকিংন লিম্ফোমার ক্ষেত্রে রক্তের শ্বেতকণিকার পাশাপাশি লসিকা কোষ ও অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পায়।

  মডার্ণ ক্যান্সার হসপিটাল গুয়াংজৌ এর বিশেষজ্ঞরা বলেন যে , শরীরের কোন স্থানে ফোলা বা অস্বাভাবিকতা লক্ষ্য করলে রোগীকে অবিলম্বে হাসপাতালে পরীক্ষা এবং চিকিৎসার জন্য নিয়ে যেতে হবে।

scrollTop

কান্সারের ধরণ

মলাশয় ক্যান্সার
ফুসফুস কান্সার
গর্ভাশয়ের ক্যান্সার
পাকস্থলীর ক্যান্সার
বাকযন্ত্রের কান্সার
খাদ্যনালীর ক্যান্সার
পাকস্থলির ক্যান্সার
মস্তিস্কের ক্যান্সার
লিভার কান্সার
হাড়ের ক্যান্সার
স্কীন ক্যান্সার
যোনি ক্যান্সার
পিত্তকোষ
প্রোস্টেট ক্যান্সার
লিম্ফোমা
অগ্ন্যাশয় ক্যান্সার
এন্ডওমেটরিয়াল ক্যান্সার
থাইরয়েড ক্যান্সার
পিত্তনালীর ক্যান্সার
মুখের ক্যান্সার
কিডনি ক্যান্সার
একাধিক মেলোমা
জিহ্বা ক্যান্সার
মূত্রাশয় ক্যান্সার
ডিউড্রেনাল ক্যান্সার
সফট টিস্যু ক্যান্সার
অ্যাড্রেনাল ক্যান্সার
Nasopharyngeal ক্যান্সার
testicular ক্যান্সার
লিউকেমিয়া
মলদ্বারে ক্যান্সার
চোখের কান্সার

প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি
জাদুকরী স্টিম সেল
গ্রীন কেমোথেরাপি-ক্যান্সার চিকিৎসায় এক অনন্য সংযোজন
পেট/সিটিঃ চিত্রের সাহায্যে কোষের বিপাক প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণের একটি প্রযুক্তি যার মাধ্যমে
টার্গেটেড জীন থেরাপিঃ ক্যান্সার নিরাময়ের একটি নতুন চিকিৎসা
ফোটন নাইফ : ত্রিমাত্রিক কনফর্মাল রঁজনরশ্মি দ্বারা চিকিত্সা ------ একাধিক ক্ষেত্র প্রযোজ্য, একত

খবর ও ঘটনা
ব্যক্তিগত প্রোফাইল
  বোয়াই অ্যান্টিক্যান্সার ক্লাব সদস্য সম্মেলন মডার্ণ ক্যান্সার হসপিটাল গুয়াংজৌ থেকে সফল ভাবে চিকিৎসা নিয়ে আসা রোগীদের সম্মেলন
চট্টগ্রামে মিনিম্যালি ইনভ্যাসিভ টার্গেটেড ক্যান্সার থেরাপি প্রযুক্তি সেমিনার
ক্যান্সার চিকিৎসায় নতুন আশা মিনিম্যালি ইনভ্যাসিভ টার্গেটেড ক্যান্সার থেরাপি প্রযুক্তি সেমিনার
চট্টগ্রামে চায়না এমডিটি বিশেষজ্ঞ দলের দ্বিতীয় সেমিনার অনুষ্ঠিত