>
>
>

লিউকেমিয়ার চিকিৎসা

  লিউকেমিয়া হল রক্ত-বিরচন সিস্টেমের একতি মারাত্মক রোগ। এটা যে কোনো বয়সে হতে পারে।  জটিল অবস্থায় উপনীত লিউকেমিয়া স্বাস্থের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর যেহেতু এটি হঠাৎ করে হয়, দ্রুত বর্ধনশীল এবং ক্ষতিকর। মেডিক্যাল সাইন্সের অগ্রযাত্রার সাথে সাথে জটিল অবস্থায় উপনীত অনেক লিউকেমিয়া রোগী তাদের ব্যাথা থেকে মুক্তি পেয়েছেন উন্নত চিকিৎসার ফলে। আসলে, আজকাল ব্যাথামুক্তিই লিউকেমিয়া চিকিৎসার শেষ লক্ষ্য নয়। তথাপি, রোগীর জীবনের মানোন্নয়ন এবং তাদের দীর্ঘায়ু ই এখনকার গবেষণার মূল উদেশ্য। লিউকেমিয়া চিকিৎসা পদ্ধতি এখন পর্যন্ত নিচের বিষয়গুলো অন্তর্ভূক্ত করেঃ
  

  বোন ম্যারো প্রতিস্থাপন

  
  ক্যান্সার কোষ এবং অস্বাভাবিক ক্লোনিং কোষগুলো পরিষ্কার করার পর বোন ম্যারো প্রতিস্থাপন করা হয় এবং ইহা প্যাথোজেনেসিস বন্ধ করে দেয় রেডিয়েশন থেরাপি, কেমোথেরাপি অথবা অন্য কোনো প্রতিরোধ উপায়ে। এটা হল রোগীর অথবা অন্য কারও স্বাভাবিক রক্ত-উৎপন্নকারী স্টেম কোষ লিউকেমিয়া রোগীর শরীরে স্থাপন করা, যাতে করে তার কোষগুলো স্বাভাবিক রক্ত-উৎপন্নকারী কোষে পরিণত হতে পারে এবং ইহাই হলো চিকিৎসার উদ্দেশ্য। এটাই লিউকেমিয়ার সর্বোত্তম চিকিৎসা পদ্ধতি, যার মাধ্যমে ৫০% লিউকেমিয়া রোগীর জীবনকাল দীর্ঘ হয়েছে।
  

  কেমোথেরাপি

  
  উন্নত লিউকেমিয়ার জন্য কেমোথেরাপিও অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি চিকিৎসা পদ্ধতি। এটার লক্ষ্য হলো লিউকেমিয়ার ক্লোনিং কোষগুলোকে ধ্বংস করা এবং বোন ম্যারো পুনরায় তৈরি করা যাতে এটা স্বাভাবিক কোষ উৎপন্নকারী কার্যক্রমে ফিরে যেতে পারে। কেমোথেরাপি নিম্নোক্ত ভাগে ভাগ করা যায়ঃ ইন্ডাকশন কেমোথেরাপি, উপশমের পরের কেমোথেরাপি, চিকিৎসার পরের কেমোথেরাপি, ইনটেনসিভ কেমোথেরাপি। এটা লিউকেমিয়ার লক্ষণগুলো কার্যকরভাবে উপশম করতে পারে এবং রোগীর জীবন দীর্ঘজীবি করতে পারে। তথাপি, বোন ম্যারো প্রতিস্থাপনের পূর্বে এটা একটি প্রয়োজনীয় ধাপ।
  

  গতানুগতিক চাইনিজ ঔষধ এবং পাশ্চাত্য ঔষধের মিশ্রণ

  
  যেহেতু কেমোথেরাপি এবং বায়োথেরাপি মানব শরীরে অনেক বিষাক্ত পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে, তাই চাইনিজ ঔষধের সাথে এদের মিশ্রণ কার্যতভাবে এইসব পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কমাতে পারে। যেসব লিউকেমিয়া রোগীর গভীর মেটাস্টাসিস আছে এবং যারা একটু গরীব প্রকৃতির এবং যারা কেমোথেরাপির পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সহ্য করতে পারে না, তারা ইচ্ছা করলে চাইনিজ ঔষধের চিকিৎসা নিতে পারেন, যার জীবনের মানোন্নয়ন এবং জীবনকাল দীর্ঘায়নে রয়েছে ব্যাপক সাফল্য।
  

  বায়োথেরাপি

  
  বিগত কয়েক বছরে বায়োথেরাপির উপর গবেষণা অনেক সফলতা অর্জন করেছে। “ডি সি – সি আই কে” বায়োথেরাপি টেকনিক শরীরের ইমিউন সিস্টেম চালু করতে সাহায্য করে এবং ক্যান্সার কোষগুলকে সরিয়ে ফেলে। সেই সাথে তাদের বংশবৃদ্ধি বিনষ্ট করে দেয় যাতে করে রিকারেন্স এবং মেটাস্টাসিস আর না হয়।
  
  মডার্ন ক্যান্সার হসপিটাল গুয়াংঝু এর বিশেষজ্ঞরা মনে করেন যে, যেহেতু অনেক ধরনের লিউকেমিয়া আছে, তাই চিকিৎসা পদ্ধতি রোগীর শারীরিক অবস্থার উপর নির্ভর করে নির্বাচন করা উচিৎ। যদিও মেডিক্যাল সাইন্সের আরও অনেক সময় লাগবে সম্পূর্ণরূপে লিউকেমিয়া সারিয়ে তুলতে, তারপরও লিউকেমিয়া রোগীরা তাদের রোগ নিয়ন্ত্রনে রাখতে পারেন নিম্নোক্ত ডাক্তারের পরামর্শ এবং সঠিক চিকিৎসা পদ্ধতি অনুসরন করে ও নিয়মিত খাদ্যাভ্যাসের ধরণ অনুযায়ী।
scrollTop

কান্সারের ধরণ

মলাশয় ক্যান্সার
ফুসফুস কান্সার
গর্ভাশয়ের ক্যান্সার
পাকস্থলীর ক্যান্সার
বাকযন্ত্রের কান্সার
খাদ্যনালীর ক্যান্সার
পাকস্থলির ক্যান্সার
মস্তিস্কের ক্যান্সার
লিভার কান্সার
হাড়ের ক্যান্সার
স্কীন ক্যান্সার
যোনি ক্যান্সার
পিত্তকোষ
প্রোস্টেট ক্যান্সার
লিম্ফোমা
অগ্ন্যাশয় ক্যান্সার
এন্ডওমেটরিয়াল ক্যান্সার
থাইরয়েড ক্যান্সার
পিত্তনালীর ক্যান্সার
মুখের ক্যান্সার
কিডনি ক্যান্সার
একাধিক মেলোমা
জিহ্বা ক্যান্সার
মূত্রাশয় ক্যান্সার
ডিউড্রেনাল ক্যান্সার
সফট টিস্যু ক্যান্সার
অ্যাড্রেনাল ক্যান্সার
Nasopharyngeal ক্যান্সার
testicular ক্যান্সার
লিউকেমিয়া
মলদ্বারে ক্যান্সার
চোখের কান্সার

প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি
জাদুকরী স্টিম সেল
গ্রীন কেমোথেরাপি-ক্যান্সার চিকিৎসায় এক অনন্য সংযোজন
পেট/সিটিঃ চিত্রের সাহায্যে কোষের বিপাক প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণের একটি প্রযুক্তি যার মাধ্যমে
টার্গেটেড জীন থেরাপিঃ ক্যান্সার নিরাময়ের একটি নতুন চিকিৎসা
ফোটন নাইফ : ত্রিমাত্রিক কনফর্মাল রঁজনরশ্মি দ্বারা চিকিত্সা ------ একাধিক ক্ষেত্র প্রযোজ্য, একত

খবর ও ঘটনা
ব্যক্তিগত প্রোফাইল
  বোয়াই অ্যান্টিক্যান্সার ক্লাব সদস্য সম্মেলন মডার্ণ ক্যান্সার হসপিটাল গুয়াংজৌ থেকে সফল ভাবে চিকিৎসা নিয়ে আসা রোগীদের সম্মেলন
চট্টগ্রামে মিনিম্যালি ইনভ্যাসিভ টার্গেটেড ক্যান্সার থেরাপি প্রযুক্তি সেমিনার
ক্যান্সার চিকিৎসায় নতুন আশা মিনিম্যালি ইনভ্যাসিভ টার্গেটেড ক্যান্সার থেরাপি প্রযুক্তি সেমিনার
চট্টগ্রামে চায়না এমডিটি বিশেষজ্ঞ দলের দ্বিতীয় সেমিনার অনুষ্ঠিত